তল্লাশি ছাড়া ভারতীয় নাগরিককে চেকপোস্ট পার হতে বাধা দেওয়ার ঘটনায় বেনাপোল কাস্টমস কর্মকর্তা ও ইমিগ্রেশন পুলিশের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে।

">
Pran All Time

পুলিশ-কাস্টমস কর্মকর্তা হাতাহাতি, বেনাপোলে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ

UNB NEWS

বৃহস্পতিবার ২১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ১২:১০:০৮ পিএম

পুলিশ-কাস্টমস কর্মকর্তা হাতাহাতি, বেনাপোলে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ

বেনাপোল, ২১ ডিসেম্বর (ইউএনবি) – তল্লাশি ছাড়া ভারতীয় নাগরিককে চেকপোস্ট পার হতে বাধা দেওয়ার ঘটনায় বেনাপোল কাস্টমস কর্মকর্তা ও ইমিগ্রেশন পুলিশের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার সন্ধ্যার এ ঘটনায় পাঁচ কাস্টমস কর্মকর্তা আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

প্রতিবাদে রাত থেকে বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য বন্ধ করে দিয়েছে কাস্টমস অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন।

হাতাহাতির ঘটনায় আহতরা হলেন- কাস্টমস সুপারিনটেনডেন্ট সুভাশিষ বাবু ও নজরুল ইসলাম এবং কাস্টমস ইন্সপেক্টর ফরহাদ রেজা, মামুনুল হক ও ইকবাল হোসেন।

কাস্টমস অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নজরুল ইসলামের ভাষ্যমতে, সন্ধ্যা ৭টায় ইমিগ্রেশন পুলিশের এক কর্মকর্তা দু’জন ভারতীয় নাগরিককে বিনা তল্লাশিতে চেকপোস্ট পার করার সময় কাস্টমস কর্মকর্তারা বাধা দেন। এ ঘটনায় পুলিশ ও তাদের মধ্যে বাগবিতণ্ডা শুরু হয়।

পরে ওসি ওমর শরীফের নেতৃত্বে ৪/৫ জন পুলিশ কাস্টমস কর্মকর্তাদের ওপর হামলা চালায়। পুলিশের বিরুদ্ধে কাস্টমসের অফিস ভাংচুরেরও অভিযোগ করেন নজরুল ইসলাম।

এতে তিনিসহ ৫ কাস্টমস কর্মকর্তা আহত হন বলে জানান কাস্টমস অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি।
এ ঘটনার প্রতিবাদে কাস্টমস অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন দু’দেশের মধ্যে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্যসহ বন্দর থেকে সব ধরনের মালামাল খালাস বন্ধ করে দেয়।

বেনাপোল চেকপোস্ট পুলিশ ইমিগ্রেশনের ওসি ওমর শরীফের দাবি, তিনি যাত্রীদের নিয়ে কাস্টমসের তল্লাশি কেন্দ্রে গেলে কর্মকর্তারা তাকে ধাক্কা দেন। এতে কাস্টমস ও পুলিশ ইমিগ্রেশন কর্মকর্তাদের মাঝে হাতাহাতি শুরু হয়। বিষয়টি সম্পূর্ণ ভুল বোঝাবুঝির কারণে হয়েছে।