লালমনিরহাট সদরের বড়বাড়িতে দ্বিতীয়বারের মতো শুরু হয়েছে পাঁচ দিনব্যাপী ব্যতিক্রমী বউ-জামাই মেলা।

">
Pran All Time

লালমনিরহাটে শুরু হয়েছে ব্যতিক্রমী বউ-জামাই মেলা

UNB NEWS

শুক্রবার ২২ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০৬:০২:৫৮ পিএম

লালমনিরহাটে শুরু হয়েছে ব্যতিক্রমী বউ-জামাই মেলা

লালমনিরহাট, ২২ ডিসেম্বর (ইউএনবি)- লালমনিরহাট সদরের বড়বাড়িতে দ্বিতীয়বারের মতো শুরু হয়েছে পাঁচ দিনব্যাপী ব্যতিক্রমী বউ-জামাই মেলা।

শুক্রবার উদ্বোধনী দিন থেকেই দর্শনার্থীদের ভিড়ে জমজমাট হয়ে উঠেছে মেলা প্রাঙ্গণ।

সকাল ১০টায় শহীদ আবুল কাশেম মহাবিদ্যালয় মাঠে মেলার উদ্বোধন করেন সাবেক উপমন্ত্রী অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলু।

রংপুর ও রাজশাহী অঞ্চলের ১৬টি জেলার মাছচাষী ও ব্যবসায়ীরা মেলায় অংশ নিয়েছেন। আর স্টলগুলোতে ঠাঁই পেয়েছে হরেক রকমের পিঠা। সেই সাথে মেলায় রংপুর অঞ্চলের হারানো সব ঐতিহ্য স্থান পেয়েছে। থাকছে জারি, সারি, লোকসংগীত ও ভাওয়াইয়া গানের আসর।

মেলা উপলক্ষে স্থানীয় প্রতিটি বাড়িতে বেড়াতে এসেছে মেয়ে ও জামাই।

মেলার প্রধান পৃষ্ঠপোষক আসাদুল হাবিব দুলু বলেন, ‘গ্রামীণ ঐতিহ্যকে টিকিয়ে রাখতে দ্বিতীয়বারের মতো বউ-জামাই মেলার আয়োজন করা হয়েছে। মেলায় আগত জামাই বড় মাছ কিনে শ্বশুর বাড়ি যাবেন আর হরেক রকম পিঠা খাবেন।’

‘নতুন প্রজন্মের শিশুরা বিলুপ্ত প্রায় অনেক মাছই দেখেনি। মেলার মাধ্যমে তারা সেসব মাছের সাথে পরিচিত হবে এবং বড় বড় মাছ দেখতে পাবে। আর খামারীরাও বড় মাছ চাষে উৎসাহ পাবেন’, যোগ করেন তিনি।

এদিকে, মাছ ও পিঠার উচ্চমূল্য নিয়ে অভিযোগ পাওয়া গেল মেলায় আগতদের কাছ থেকে। ক্রেতারা বলছেন, মাছে ও পিঠার দাম অনেক বেশি চাওয়া হচ্ছে।

মাছ বিক্রেতাদের যুক্তি, সামুদ্রিক মাছের দাম আড়তেই অনেক চড়া। তার সাথে আছে পরিবহন খরচ। তাই সামুদ্রিক মাছগুলো দেড় থেকে দু’হাজার টাকা কেজি দরে বিক্রি না করলে লাভ হবে না। আর পিঠা বিক্রেতারা বলছেন, সব জিনিসেরই দাম বেশি, তাই পিঠার দামও একটু বেশি পড়ছে।

তবে দাম যাই হোক, পূর্ব পুরুষের ঐতিহ্য ধরে রাখার জন্য মেলায় আসা বউ ও জামাই পছন্দ মতো মাছ ও পিঠা কিনে শ্বশুর বাড়ি যাচ্ছেন।