রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বলেছেন, উন্নয়ন একটি চলমান প্রক্রিয়া। উন্নয়ন কেউ কাউকে দেয় না, এটা অর্জন করতে হয়।

">
Pran All Time

উন্নয়ন কেউ দেয় না, অর্জন করতে হয়: রাষ্ট্রপতি

UNB NEWS

বুধবার ২৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০৭:১১:০২ পিএম

উন্নয়ন কেউ দেয় না, অর্জন করতে হয়: রাষ্ট্রপতি

চরফ্যাসন, ২৪ জানুয়ারি (ইউএনবি)- রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বলেছেন, উন্নয়ন একটি চলমান প্রক্রিয়া। উন্নয়ন কেউ কাউকে দেয় না, এটা অর্জন করতে হয়।

বুধবার বিকালে চরফ্যাসনে পেশাজীবী, সুশীল সমাজের সদস্যের সাথে মতবিনিময় সভায় এ কথা বলেন রাষ্ট্রপতি।

তিনি বলেন, অন্যের উপর নির্ভরশীল না হয়ে নিজের যা আছে তা নিয়েই আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। ৫৪ হাজার বর্গ মাইলের ছোট দেশটিতে প্রায় ১৭ কোটি লোকের বসবাস। এ বিশাল জনগোষ্ঠীকে জনসম্পদে পরিণত করতে না পারলে দেশের সব উন্নয়ন পরিকল্পনাই ব্যর্থ হয়ে যাবে। উন্নয়নের প্রতিটি ধাপে এ বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করতে হবে।

মোঃ আবদুল হামিদ বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়ন সম্ভাবনা খুবই উজ্জ্বল। কিন্তু আমাদের সম্ভাবনাসমূহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে। তাই একবিংশ শতাব্দীতে দেশকে একটি উন্নত-সমৃদ্ধ রাষ্ট্রে পরিণত করতে হলে এসব উন্নয়ন সম্ভাবনাসমূহকে যথাযথভাবে কাজে লাগাতে হবে। আর এজন্য দরকার জনপ্রতিনিধি, উদ্যোক্তা, সরকারি কর্মচারী ও স্থানীয় জনগণের সমন্বিত প্রয়াস।

রাষ্ট্রপতি বলেন, চরফ্যাসনের রাস্তাঘাট, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন অবকাঠামোসহ সার্বিক উন্নয়নের চিত্র দেখে অভিভূত। চরফ্যাসনবাসীদের জানাচ্ছি আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

তিনি বলেন, মুক্তিসংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধে এই অঞ্চলের জনগণের ছিল অসামান্য অবদান। যাদের অবদান ও আত্মত্যাগের বিনিময়ে আজ আমরা স্বাধীন দেশের গর্বিত নাগরিক তাদের প্রতি জানাই গভীর শ্রদ্ধা।

তিনি আরো বলেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যার নেতৃত্বে আমরা অর্জন করি স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশ, আমি এই মহান নেতার প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানাচ্ছি। বিশ্বের বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলনে আত্মদানকারী সকল শহীদের আত্মার মাগফিরাত ও শান্তি কামনা করছি।

চরফ্যাসনের উন্নয়ন আজ সর্বজনবিদিত উল্লেখ করে তিনি বলেন, অবকাঠামো, রাস্তাঘাট, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান, নদী সংরক্ষণ, অফিস আদালতসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে এ এলাকার উন্নয়ন অনেক এলাকার জন্য অনুসরণীয় হয়ে উঠেছে। এজন্য স্থানীয় সংসদ-সদস্য জ্যাকবকে এবং চরফ্যাসনবাসীকে আন্তরিক অভিনন্দন জানাই।

রাষ্ট্রপতি বলেন, কৃষি ও মৎস্য খাতে নদীমাতৃক এ অঞ্চলের ঐতিহ্য সুদীর্ঘকালের। এছাড়া এ এলাকার পর্যটন সম্ভাবনাও খুবই উজ্জ্বল। এ সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোক্তা ও স্থানীয় জনসাধারণকে এগিয়ে আসতে হবে। পর্যটন শিল্পের বিকাশ নিশ্চিত করতে পর্যটকের নিরাপত্তা ও সুযোগ-সুবিধা বাড়াতে হবে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ওয়াচ টাওয়ারের মাধ্যমে পর্যটন শিল্পের পর্যাপ্ত বিকাশ ঘটেছে।

আবদুল হামিদ বলেন, শিক্ষা একটি জাতির উন্নয়নের অন্যতম প্রধান হাতিয়ার। তাই দেশকে উন্নতি ও অগ্রগতির পথে এগিয়ে নিতে হলে দেশের প্রতিটি নাগরিককে শিক্ষিত করে তুলতে হবে। সরকার এ লক্ষ্যে অবকাঠামোসহ প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ নিচ্ছে।

অনুষ্ঠানে সভাপত্বিত করেন চরফ্যাসন পৌরসভার মেয়র শ্রী বাদলকৃঞ্চ দেবনাথ। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শিল্পমন্ত্রী আমীর হোসনে আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব প্রমুখ।