বইপ্রেমীদের জন্য সুসংবাদ। এবারের অমর একুশে বইমেলার পরিসর আরো বাড়ানো হচ্ছে। থাকছে ভালো ব্যবস্থাপনাও।

">
Pran All Time

বইমেলায় থাকছে ব্যাপক চমক, স্টল ভাড়া বাড়বে

UNB NEWS

বৃহস্পতিবার ০৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ১১:০৮:০৮ এএম

বইমেলায় থাকছে ব্যাপক চমক, স্টল ভাড়া বাড়বে

শফিকুল ইসলাম, ০৪ জানুয়ারি (ইউএনবি)-বইপ্রেমীদের জন্য সুসংবাদ। এবারের অমর একুশে বইমেলার পরিসর আরো বাড়ানো হচ্ছে। থাকছে ভালো ব্যবস্থাপনাও।

বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণ থেকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের এক অংশ পর্যন্ত বইমেলার পরিসর থাকবে।

মাসব্যাপী বইমেলাকে সামনে রেখে এরইমধ্যে প্রস্তুতির কাজ শুরু করেছে আয়োজকরা। বেশি স্টল এবং দর্শনার্থীদের একটি ভালো পরিবেশ দেয়ার উদ্দেশ্যে কাজ করছেন তারা।

বাংলা একাডেমির বইমেলার আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব জালাল আহমেদ ইউএনবিকে জানান, এবার মেলার বইয়ের স্টল, প্রকাশনা সংস্থা ও প্যাভিলিয়নের সংখ্যা বাড়বে। এজন্য বেশ আগে থেকেই প্রস্তুতি শুরু করা হয়েছে। একই সাথে এবার স্টল ভাড়াও বাড়বে বলে জানান তিনি।

গত বছরের তুলনায় এবার প্যাভিলিয়ন ভাড়া ২০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়বে। স্টল ও প্যাভিলিয়নের সংখ্যা কত বাড়তে পারে সে সম্পর্কে বলেননি তিনি।

প্রায় ছয় হাজার প্রকাশকরা বইমেলায় আবেদন করতে পারবেন।

গত বছর মেলায় ৩৫১ প্রতিষ্ঠানের ৫৬৫ ইউনিট স্টলের বরাদ্দ ছিল। এরমধ্যে ১২৮টি স্টল বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে এবং ৪৩৭টি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ছিল। গত বছর প্রথমবারের মতো ১১টি প্রতিষ্ঠান বরাদ্দ পেয়েছিল।

জালাল আহমেদ জানান, এবার সুন্দর সাজসজ্জায় বইপ্রেমীদের জন্য বসার জায়গাসহ উল্লেখযোগ্য সংখ্যক টয়লেটের ভালো ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে।

এছাড়া নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচনের জায়গাও দর্শনীয় ও বড় করে তৈরি করা হবে।

লেখক ও প্রকাশকদের প্রবেশের জন্য পৃথক গেট থাকবে। বয়স্ক ব্যক্তি ও সাংবাদিকরাও সেটি ব্যবহার করতে পারবেন।

এখন থেকে মেলায় অংশগ্রহণের জন্য লেখকদের চুক্তির দলিল, তথ্য ফর্মসহ প্রশংসাপত্র প্রকাশকদের জমা দেয়া বাধ্যতামূলক করেছে বাংলা একাডেমি।

আগামী ৮ জানুয়ারি স্টল বণ্টনের তালিকা প্রকাশ করবে একাডেমি। পরে উন্মুক্ত ডিজিটাল লটারির মাধ্যমে স্টলের জায়গা ভাগ করা হবে।

নিরাপত্তা প্রসঙ্গে জালাল জানান, এ বছরের মেলায় কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে। সকল প্রকাশনা সংস্থাকে ইন্সুরেন্সের অধীনে আনা হবে। মেলা প্রাঙ্গণ, দোয়েল চত্ত্বর, টিএসসি ও শামসুন্নাহার হল থেকে শাহবাগ পর্যন্ত ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরার অধীনে থাকবে। বাংলা একাডেমির ভেতরে এবং সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আটটি গেটে দর্শনার্থী প্রবেশের সময় পরীক্ষা করা হবে।

ফেব্রুয়ারির ১ তারিখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বইমেলার উদ্বোধন করবেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার দেয়া হবে।

ফেব্রুয়ারির ২০-২৩ তারিখ পর্যন্ত তিন দিনব্যাপী ‘আন্তর্জাতিক সাহিত্য সম্মেলন’ অনুষ্ঠিত হবে। গত বছর থেকে এটি বইমেলার নতুন সংযোজন।

প্রতিদিন বিকাল ৪টায় মূল মঞ্চে একটি সেমিনার হবে।

মাসব্যাপী মেলা দুপুর ৩টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সকলের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

বইমেলা শেষ হবে ২৮ ফেব্রুয়ারি।