এবারের বাংলা নববর্ষে প্রথম বাংলাদেশি কার্টুনিস্টের একটি স্টিকারের সেট প্রকাশ করেছে জায়ান্ট সোশ্যাল মিডিয়া-ফেসবুক।

">
Pran All Time

ফেসবুকে প্রথম বাংলাদেশি কার্টুনিস্টের স্টিকার

UNB NEWS

রবিবার ১৫ এপ্রিল, ২০১৮ ০৩:৩৩:৩৮ পিএম

ফেসবুকে প্রথম বাংলাদেশি কার্টুনিস্টের স্টিকার

রিয়াজ হায়দার

ঢাকা, ১৫ এপ্রিল (ইউএনবি)- এবারের বাংলা নববর্ষে প্রথম বাংলাদেশি কার্টুনিস্টের একটি স্টিকারের সেট প্রকাশ করেছে জায়ান্ট সোশ্যাল মিডিয়া-ফেসবুক।

টুইন কার্টুনিস্ট মানিক এন রতন ড্রোগো-একটি ক্ষুদ্র প্রাণী দিয়ে স্টিকারের সেটটি বানান।

ফেসবুক স্টিকার বিভাগ তাদের সোশ্যাল নেটওয়ার্ক পেজে জানায়, ১৪ এপ্রিল থেকে ড্রোগো স্টিকারের সেট  ফেসবুকের স্টিকার স্টোরে পাওয়া যাচ্ছে। ড্রোগোর সাথে পরিচিত হও। এই ক্ষুদ্র প্রাণীর মাধ্যমে ম্যাসেজ ও কমেন্টে অনুভূতি প্রকাশ করো।

বর্তমানে মানুষ সোশ্যাল মিডিয়ায় অনুভূতি প্রকাশের জন্য কিছু লেখার পরিবর্তে স্টিকার ব্যবহার করতেই বেশি স্বাচ্ছন্দবোধ করে। ফেসবুক ম্যাসেনজার স্টোরে অনেক স্টিকার রয়েছে। তবে কোনো বাংলাদেশি আর্টিস্টের বানানো প্রথম স্টিকার ড্রোগো

ফেসবুক স্টিকারটি অনুমোদন দেয়ায় পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের মানুষ এখন বাংলাদেশ সম্পর্কে জানতে পারবে।

ড্রোগোবাংলাদেশি টুইন কার্টুনিস্ট মানিক এন রতনের একটি কাল্পনিক মাসকট। এই ড্রাগনটি এতটাই ছোট যে এক হাতের তালুর মাঝখানে বসানো যেতে পারে।

এই স্টিকার প্রসঙ্গে ইউএনবির কাছে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে কার্টুনিস্ট মানিক বলেন, আমাদের খুবই আনন্দ  লাগে যখন দেখি ড্রোগো স্টিকারটি পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের মানুষ ব্যবহার করছে।

ড্রোগোকে পোষা ড্রাগন উল্লেখ করে মানিক আরো বলেন, প্রায় দুই বছর আগে পোষা প্রাণীর চরিত্র নিয়ে স্টিকার বানানোর চিন্তা আমাদের মাথায় আসে এবং ড্রোগো আঁকি। প্রথমে এটিকে ইন্সটাগ্রামে শেয়ার করি। সেখান থেকে প্রচুর প্রশংসা আসে।

ড্রোগো নিয়ে ফেসবুকের আগ্রহের ব্যাপারে মানিক জানান, গত বছর ফেসবুকের স্টিকার বিভাগ থেকে স্টিকারটির প্রশংসাসূচক একটি মেইল পাই আমরা। তাদের আগ্রহের কথা জানিয়ে আমাদের একটি স্টিকারের সেট বানানোর প্রস্তাব দেয় ফেসবুক। ‘

পরে কার্টুনিস্ট মানিক এন রতন স্টিকারের সেট বানিয়ে ফেসবুকের কাছে জমা দেন।

সোশ্যাল মিডিয়া পেজে বিশ্বব্যাপী ড্রোগোর চালু উপলক্ষে মানিক বলেন, অনেক প্রক্রিয়া শেষে অবশেষ ফেসবুক পুরো বিশ্বে তাদের গ্রাহকদের কাছে ড্রোগোকে উন্মুক্ত করেছে। এই স্টিকার ব্যবহার করে ফেসবুক ব্যবহারকারী এখন তাদের অনুভূতি প্রকাশ করতে পারবে। ফেসবুক ম্যাসেনজারে চ্যাটিংয়ের সময় এই স্টিকার সবাই ব্যবহার করতে পারবে। এছাড়া ফেসবুকে কমেন্ট বা পোস্টারেও ব্যবহার করতে পারবে।

ভবিষ্যত পরিকল্পনা নিয়ে তারা জানান, আমরা এখন ড্রোগোকে নিয়ে শর্ট অ্যানিমেশন ফিল্ম বানানোর পরিকল্পনা করছি।

 ‘ড্রোগোস্টিকারের সেটটি ডাউনলোড করতে ভিজিট করুন https://bit.ly/2qz8pxD