ইয়েমেনে যুদ্ধবিরতি ঘোষণার পর সৌদির সেনাপ্রধান ও প্রতিরক্ষা বাহিনীর বেশ কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে চাকরিচ্যুত করেছে সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ।

">
Pran All Time

ইয়েমেন যুদ্ধবিরতির মধ্যেই চাকরিচ্যুত সৌদি সেনাপ্রধান

UNB NEWS

মঙ্গলবার ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১০:৪৩:২৩ এএম

ইয়েমেন যুদ্ধবিরতির মধ্যেই চাকরিচ্যুত সৌদি সেনাপ্রধান

দুবাই, ২৭ ফেব্রুয়ারি (এপি/ইউএনবি)- ইয়েমেনে যুদ্ধবিরতি ঘোষণার পর সৌদির সেনাপ্রধান ও প্রতিরক্ষা বাহিনীর বেশ কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে চাকরিচ্যুত করেছে সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ।
 

সৌদি প্রেস এজেন্সি (এসপিএ) সংবাদটি প্রকাশ করলেও সেনাপ্রধানকে কেনো বরখাস্ত করা হলো এবং প্রতিরক্ষা বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদেরই বা কেনো পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হলো সে বিষয়ে কিছুই জানায়নি দেশটির কর্তৃপক্ষ।
 

বিবিসির খবরে বলা হয়, সোমবার গভীর রাতে কয়েকটি আদেশ জারির মাধ্যমে সেনাপ্রধানসহ শীর্ষ সেনা কর্মকর্তাদের বরখাস্ত করেন বাদশাহ সালমান।
সৌদি নিউজ এজেন্সির বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এপি জানিয়েছে, সৌদি সেনাপ্রধান আবদুল রহমান বিন সালেহ আল বানিয়ানকে সরিয়ে ফায়াদ আল রুয়ালিকে সেনাপ্রধান  নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া বিমানবাহিনী ও স্থলবাহিনীর প্রধানের পদেও পরিবর্তন আনা হয়েছে।

 

এ ছাড়া শ্রম ও সমাজ উন্নয়নবিষয়ক মন্ত্রণালয়ে এক নারীকে উপমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তাঁর নাম তামাদার বিনতে ইউসুফ আল রামাহ। দক্ষিণ–পশ্চিমাঞ্চলের আসির প্রদেশে ডেপুটি গভর্নর হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে প্রিন্স তুর্কি বিন তালালকে।
 

সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট ইয়েমেনে প্রায় তিন বছর ধরে হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছে। সম্প্রতি সেখানে কিছুটা বেকায়দায় পড়েছে সৌদি জোট। এই পরিস্থিতিতে সেনাপ্রধানসহ শীর্ষ সেনা কর্মকর্তাদের বরখাস্ত করার সিদ্ধান্ত নিল সৌদি আরব। সঙ্গে আরো কিছু পদে নতুন নিয়োগ দেয়া হলো।
 

সৌদিতে সাম্প্রতিক কালের অনেকগুলো বরখাস্তের পেছনে ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের হাত রয়েছে বলে ধারণা করা হয়। কয়েক মাস আগে দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের নামে বেশ কয়েকজন প্রিন্স, মন্ত্রী ও ব্যবসায়ীকে বন্দী করা হয়েছিল ক্রাউন প্রিন্সের নির্দেশেই।