সৌদি আরবে দীর্ঘ দিন ধরে বলবত থাকা গাড়ি চালানোর উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা উঠে গেল আজ রবিবার থেকে। এই দিনকে সৌদি নারীরা তাদের জন্য ঐতিহাসিক হিসেবে বর্ণনা করে তারা বলছে সৌদি নারীর দিনটিকে বহুদিন ধরে মনে রাখবে।

">
Pran All Time

সৌদি নারীদের জন্য আজ ঐতিহাসিক দিন

উঠে গেল গাড়ি চালানোর নিষেধাজ্ঞা

UNB NEWS

রবিবার ২৪ জুন, ২০১৮ ১১:৪৫:৩৮ এএম

সৌদি নারীদের জন্য আজ ঐতিহাসিক দিন

রিয়াদ, ২৪ জুন (ইউএনবি)- সৌদি আরবে দীর্ঘ দিন ধরে বলবত থাকা গাড়ি চালানোর উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা উঠে গেল আজ রবিবার থেকে। এই দিনকে সৌদি নারীরা তাদের জন্য ঐতিহাসিক হিসেবে বর্ণনা করে তারা বলছে সৌদি নারীর দিনটিকে বহুদিন ধরে মনে রাখবে।

এদিকে এটাকে সুযোগ হিসাবে গ্রহণ করে গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো প্রাথমিকভাবে ৯০ লাখ সৌদি নারীকে তাদের গ্রাহক বানানোর পরিকল্পনা করেছে। এই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হলে সৌদি আরব বিশ্বের বৃহত্তম গাড়ির বাজারে পরিণত হবে।

বেশ কিছুদিন ধরেই সৌদি নারীদের গাড়ির প্রতি আকৃষ্ট করতে নানা ধরনের বিজ্ঞাপন প্রচার করছে বহুজাতিক কোম্পানিগুলো। এই ক্ষেত্রে প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে, নারীদের অনুভূতি এবং আবেগকে।

কেউ কেউ অভিযোগ করেছেন, নারীদের গাড়ি কেনায় আকৃষ্ট করতে গিয়ে অতিমাত্রায় নারীবাদী নীতি প্রচার করা হচ্ছে, যা সৌদি আরবে রীতি-নীতির পরিপন্থি।

বিশ্বে সৌদি আরবই একমাত্র দেশ, যেখানে কয়েক দশক ধরে নারীদের গাড়ি চালানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা বলবত আছে। এখন এই নিষেধাজ্ঞার অবসানও ঘটলো। তরুণ মোহাম্মদ বিন সালমান যুবরাজ হয়ে তার দেশকে আধুনিক করতে নানামুখী সংস্কার-কার্যক্রম হাতে নেন। এই সংস্কার কার্যক্রমের মধ্যে নারীদের গাড়ি চালানোর ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার বিষয়টিও রয়েছে বলে কর্তৃপক্ষের ভাষ্য।

সৌদিতে নারীদের গাড়ি চালানোর অনুমতি দেয়ার পদক্ষেপটি দেশটিতে সামাজিক গতিশীলতা আনার ক্ষেত্রে নতুন যুগের সূচনা করতে পারে বলে অনেক পর্যবেক্ষক মন্তব্য করেছেন।

আরব লেখক ও বিশ্লেষক হানা আর-খামরি বলেন, এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। নারীর মুক্ত গতিময়তার জন্য এটা অপরিহার্য।সৌদিপন্থি চিন্তনপ্রতিষ্ঠান অ্যারাবিয়া ফাউন্ডেশনের নাজাহ আল-ওতাইবি বলেন, এটা একটা স্বস্তি। সৌদি নারীরা সুবিচার পাওয়ার বিষয়টি অনুভব করছেন।